যখন ইখতিয়ার থাকবেনা তখন তো আমল করা যায়না তাহলে তখন কিভাবে খুশি মুবারক প্রকাশ করব?

এই দুনিয়ার জমিনে জিনারা হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলািইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শান মুবারকে উনার জন্য খুশি মুবারক প্রকাশ করবে তথা ফালইয়াফরাহু পালন করবে তারা পরকালেও ফালইয়াফরাহু পালন করতে পারবে।

আর ইখতিয়ারের মধ্যে দায়িমী ফাল ইয়াফরাহু করলে খালিক্ব মালিক বর মহান আল্লাহ পাক তিনি গইরে ইখাতিয়ারেও তা করার তাওফিক দান করবেন। কবরে জিজ্ঞাসা করা হবে কে কি করতে চায়? কেউ নামায পড়তে চাইলে উনাকে নামায পড়ার এখতিয়ার দেয়া হবে, যে যেটা চাইবেন উনাকে সেটাই দিয়ে দেয়া হবে। আমরা বলব আমরা ফাল ইয়াফরাহু পালন করতে চাই। সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ পালন করতে চাই।